বিজনেস

বিজনেস এ যা যা করা উচিত না- সফল ভাবে বিজনেস করুন

বিজনেস এ যা যা করা উচিত না- সফল ভাবে বিজনেস করুন

শুধু লক্ষ্য টাকা উপার্জন

প্রথম লাইনটা দেখে একটু অবাক হচ্ছেন কি? বিজনেস করলে টাকার কথা চিন্তা করা যাবে না এটা কেমন কথা? অবশ্যই টাকার কথা চিন্তা করবেন আপনি তো কোন দান কেন্দ্র খুলে বসেন নাই তবে বলতে চাচ্ছি শুধু টাকার কথা চিন্তা না করতে। প্রথমে যদি মানুষের উপকার করেন, মন জয় করার চেস্টা করেন তারপর দেখবেন টাকা এমনি ই আসবে। সফল মানুষদের দেখেন? বিল গেটস, জুকারবারগ আরো কত মানুষ তারা কি টাকা টাকা করে সবার সামনে এসেছে নাকি তারা নতুন কিছু করেছে, মানুষ কি চায় সেটা বুঝে সে অনুজায়ি কাজ করেছে আর সেটার অনেক গুরুত্ব ছিলো, আর সেই গুরুত্ব তাদেরকে এক দিক দিয়ে ধনী আর অন্ন দিক দিয়ে জনপ্রিয় করেছে।

অনেক বেশি পরিকল্পনা করা

এটা করবো, এটা করবো, এটা হলে এটা হবে, তারপর এটা হবে এরকম আরো কত কি, খাতায় করলেন একরকম করতে গিয়ে দেখলেন তার উল্টো,  বিজনেস করতে গেলেন চলে আসলো হতাশা তাই খুব বেশি পরিকল্পনা করার দরকার আছে বলে আমার মনে হয় না, অল্প পরিকল্পনা করেন সেটা বাস্তবে প্রয়োগ করেন, সেখানে সমস্যা আসবে, সেটা সমাধান করেন, ভুল থেকে শিক্ষা নেন। আপনার ক্রেতা কি চাচ্ছিলো, আপনি কি করলেন। সেটা কততুকু ভালো হলো অথবা হলো না ইত্যাদি চিন্তা করে আবার পরিকল্পনা করেন।

 

টাকা খরচ করতে হবে

বুঝতেই পারছেন না টাকাগুলা কোথায় খরচ করবেন বিজনেস এ? কয়েক লাখ টাকা আচে শুরু করে দিলেন কিভাবে সেগুলি শেষ করা যায়, টাকা খরচ না করলে তো মানুষ সেটাকে বিজনেস ই বলবে না। আসলে শুধু টাকার মাধ্যমে আপনি বিজনেস করতে পারবেন না। আপনার ওয়েবসাইট এর দরকার নাই, আপনার অফিসের দরকার নাই, গারির ও দরকার নাই আপনার দরকার নিজেকে, নিজের সময়কে ইনভেস্ট করেন, মানুষের সাথে কথা বলেন, কার কি প্রয়োজন সেটা বুঝতে পারেন কিনা দেখেন তখন দেখবেন প্রোডাক্ট এর আইডিয়া এমনি ই আসবে, এখন ফেসবুক অনেক কাজ সহজ করে দিয়েছে তাই এখানে ও এই কাজগুলা করা যায়।

একা করে ফেলবো সব কিছু

ই কমার্স বিজনেস এ একা একা সব কিছু করতে যান, এটা মনে হয় ঠিক না, আপনি একা একা অনেক কিছুই করতে পারবেন না, আপনার বিভিন্ন সহযোগিতা লাগতে পারে। এমন ও না সবাইকে আপনার বেতন দিতে হবে, অনেকেই কাজ শিখতে চায় তাদের সুযোগ করে দিতে পারেন, অনেক কাজ সারাদিন ধরে করার প্রয়োজন হয় না সে ক্ষেত্রে পার্ট টাইম জব দিতে পারেন কাউকে, সবাইকে মাসে একবার ডাকুন আপনার পরিকল্পনার কথা জানান, তাদের কাছে ও আইডিয়া চাইতে পারেন।

হতাশা হতাশা আর হতাশা

আপনি দিনের পর দিন কষ্ট করছেন, রাত জেগে জেগে কাজ করছেন, নিজের প্রতি ওই ভাবে যত্ন ও নিচ্ছেন না, অনেক স্বপ্ন আপনার মধ্যে, সবাইকে প্রমান করে দিবেন যে আপনি পারেন কিন্তু কোনভাবেই কিছু হচ্ছে না, হতাশ হয়ে যাচ্ছেন, পার্টনার থাকলে তাকে ও হয়তো বলে দিলেন আপনি আর করবেন না ইত্যাদি ইত্যাদি। এটা করা ঠিক হবে না, ভুল থেকে শিক্ষা নিতে হবে, এখন হয়তো চিন্তা করছেন ভুলটা কি ছিলো অথবা আসলেই ভুল ছিলো কিনা সেটাই তো জানি না তাহলে সফলদের জীবনী পড়েন, আপনার আশেপাশে যারা সফল আছেন তাদের সাথে কথা বলেন তারা কিভাবে এরকম পরিস্থিতি মোকাবেলা করেছে জানেন। প্রয়োজন হলে ফ্রেশ হয়ে নেন, কোন জায়গা থেকে কএকদিন ঘুরে আসেন। নিজের উপর বিশ্বাস আনাটা অনেক অনেক দরকার।

প্রোডাক্ট নির্বাচনে ভুল

এখানে অনেকেই আমার সাথে একমত না ই হতে পারেন, তবে প্রথমেই প্রোডাক্ট কিনে বিক্রির বিজনেস না করে সার্ভিস ভিত্তিক বিজনেস শুরু করলে আমার কাছে মনে হয় ভালো। তাহলে আপনাকে ইনভেস্ট করতে হচ্ছে কম, ক্ষতির সম্ভাবনা ও কম, অনেক প্রোডাক্ট কিনা হচ্ছে, কিনে রেখে দেয়া হচ্ছে, সেটার মার্কেটিং করছে, নতুন বিজনেস তাই ওই ভাবে সেল ও হচ্ছে না তাহলে কিন্তু আরথিক ক্ষতি আর হতাশা চলে আসে, তাই সার্ভিস ভিত্তিক বিজনেস দিয়ে শুরু করতে পারেন। এখানে বলতে চাই যারা প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করতে চান করেন কিন্তু যারা মনে করছেন লস হয়ে যাবে বিজনেস এ, লস হয়ে গেলে তো অনেক খারাপ হবে ব্যাপারটা তাদের জন্য হতে পারে সার্ভিস ভিত্তিক বিজনেস।

 

অথবা এমন প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করতে পারেন যেগুলি অর্ডার করার পর ই আপনাকে বানাতে হবে অথবা কিনতে হবে এরকম অনেক প্রোডাক্ট আছে। আবার প্রোডাক্ট কিনলে ও অল্প করে কিনেন, যার কাছ থেকে নিচ্ছেন তার সাথে কথা বলেন যে বিক্রি না হলে আপনি সেটা ফিরিয়ে দিয়ে অন্য প্রোডাক্ট নিতে পারবেন কিনা। আর সার্ভিস এর মধ্যে অনেক কিছু আছে, ফেসবুক মার্কেটিং অথবা ডিজিটাল মার্কেটিং, ডেলিভারি সার্ভিস, সফটওয়্যার, ওয়েবসাইট ডিজাইন, গ্রাফিক ডিজাইন আরো কত কি।

 

অল্প টাকায় ব্যাবসা করার কিছু উপায়

আরিফুল ইসলাম

আমার নাম আরিফুল। গ্রাফিক ডিজাইন, ডিজিটাল মার্কেটিং, ব্র্যান্ডিং ইত্যাদি বিষয় নিয়ে কাজ করি। লিখতে অনেক ভালোবাসি। মুলত আইটি বিষয়ক বিভিন্ন লেখা লিখি থাকি।আমি এই ব্লগের এডমিন। আশা করি আপনাদের ভালো কিছু আর্টিকেল দিতে পারবো যা পড়ে আপনারা উপকৃত হবেন। এটার সাথে আমি ই ক্যাব এবং জেনেসিস ব্লগে ও লিখে থাকি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *