যে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে কাজ করার ইচ্ছা সেগুলির নিয়ম জানা থাকতে হবে- মোঃ রায়হানুর রহমান(শাওন)

যে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে কাজ করার ইচ্ছা সেগুলির নিয়ম জানা থাকতে হবে- মোঃ রায়হানুর রহমান(শাওন)

আমি মোঃ রায়হানুর রহমান। আমি চাঁদপুর জেলা ফ্রীল্যান্সার এসোসিয়েশন চাঁদপুর এর প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি। বর্তমানে আমি ৪র্থ বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষা দিয়েছি। পাশাপাশি গ্রাফিক ডিজাইনের উপর বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে ফুলটাইম ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ করি।

 

টেক প্রো টিউনসঃ  কোথায় কাজ করছেন? কোন বিষয়ে কাজ করছেন?

মোঃ রায়হানুর রহমানঃ  আমি বর্তমানে ফাইবার, ফ্রি ল্যান্সার ডট কম ও আপওয়ার্কে কাজ করি।

 

এই পর্যন্ত ফাইবার ডট কমে মোঃ রায়হানুর রহমান এর উপার্জন

টেক প্রো টিউনসঃ নতুন যারা কাজ করতে চায় কিন্তু কাজ পায় না তাদের জন্য কিছু টিপস দেন

মোঃ রায়হানুর রহমানঃ আগে প্রচুর প্র্যাক্টিস ও পরিশ্রম করে নিজেকে পার্ফেক্ট করতে হবে। অবশ্যই যে কোন একটি সেক্টরে লক্ষ্য রাখতে হবে। প্রফেশনাল হওয়ার পাশাপাশি বিভিন্ন কনটেস্ট এ নিজেকে ব্যস্ত রাখতে হবে নিজের কাজের পরিধি যাচাই করার জন্য। গ্রাফিক ডিজাইনার হলে বিভিন্ন ওয়েবসাইট আছে যেখানে সারা পৃথিবীর ভালো ডিজাইনাররা তাদের আপডেট কাজ শেয়ার করে। সেখানে তাদের ফলো করা ও নতুন কনসেপ্ট সম্পর্কে আইডিয়া নেওয়া।  হতাশ হওয়া চলবেই না। লেগে থাকলে সফলতা আসবেই আগে বা পরে।

টেক প্রো টিউনসঃ কিভাবে শুরু ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার?

মোঃ রায়হানুর রহমানঃ কোর্সের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং জগতে আমার আসা হয়। এর আগে আমি এই ব্যপারে কিছুই জানতাম না। এখান থেকেই মূলত প্রফেশনাল ফ্রিল্যান্সারদের সাথে পরিচিত হওয়া ও তাদের সফলতার কথা শুনে এইখানে ক্যারিয়ার শুরু।

টেক প্রো টিউনসঃ ফ্রিল্যান্সিং কে ফুল টাইম পেশা হিসেবে নেবার ইচ্ছা আছে কি?

 

মোঃ রায়হানুর রহমানঃ ইন শা আল্লাহ ফ্রিল্যান্সিং কেই ফুলটাইম পেশা হিসেবে নিতে চাই। কারণ পূর্বে আমার চাকরী করার খারাপ অভিজ্ঞতা আছে । চাকরী করতে হয় আরেকজনের জন্য আর অনেক নিয়ম কানুন। আর এখানে আমি ফ্রি যখন ইচ্ছা কাজ করি। আর ২-১ টা কাজ করলেই পুরো মাসের বেতন চলে আসে।

 

ফ্রি ল্যান্সার ডট কমে একটা উইনিং ডিজাইন মোঃ রায়হানুর রহমান এর

টেক প্রো টিউনসঃ সফলতার পিছনের মানুষের কথা শুনতে চাই

মোঃ রায়হানুর রহমানঃ সফলতার পিছনে সবার আগে আমার বাবা-মা। যারা কিনা অনেক সাপোর্ট দিয়েছিলো এই ব্যাপারে সর্বোপরি আমাকে একটা কম্পিউটার কিনে দিয়েছিলো। তারপরে আমার ট্রেইনার জাহাদুল ইসলাম স্যার, সোহেল স্যার এবং গ্রেট একরাম স্যার।

টেক প্রো টিউনসঃ অনুপ্রানিত হোন কাদের মাধ্যমে

মোঃ রায়হানুর রহমানঃ এর আগে আমি নিজের উপর আস্থা রাখতে পারছিলাম না আমি আসলেই এই কাজ পারবো কিনা। পরে জাহাদ স্যার আমার কাজের উন্নতি দেখে এক প্রকার জোর করে এই পথে আনে।মোঃ একরাম স্যার এর কথাও আমাকে যথেষ্ট অনুপ্রাণিত করেছে। তারপরে আসতে আসতে সফল হওয়া ও পুরোপুরি ফ্যিল্যান্সার হয়ে যাওয়া। অবশ্যই আমার ট্রেইনার। তারাই আমাকে স্বপ্ন দেখিয়েছে আর তাদের দেখেই আমি মনে অনুপ্রেরণা পাই যে আমি ফ্রিলান্সিং করতে পারবো।

টেক প্রো টিউনসঃ প্রথমবার যখন সফল হলেন তখন অনুভুতি কেমন ছিলো

মোঃ রায়হানুর রহমানঃ প্রথম সফলতা আসে ফ্রিলান্সার ডটকমে একটি কনট্স্টে উইনের মাধ্যেমে। আমি নিজেও জানতাম না যে আমি এটা পেরেছি। আর এই খুশির খবরটা জাহাদ স্যার ই আমাকে ফোন করে জানায়। এ অনুভুতি ভাষায় প্রকাশ করার মতো না।তবে সেটা ছিলো বেস্ট মোমেন্ট গুলোর মধ্যে অন্যতম।

টেক প্রো টিউনসঃ অনেকের একাউন্ট বাতিল হয়ে যায় মার্কেটপ্লেসে, কি বলবেন সমাধানের উপায়।

মোঃ রায়হানুর রহমানঃ সবার আগে যে মার্কেটপ্লেসে কাজ করার ইচ্ছা সে মার্কেটপ্লেসের নিয়ম জানা থাকতে হবে। অই সাইটের নিয়ম মেনে চললেই একাউন্ট বাতিল এর সমস্যা দূর হবে। কোনো অনৈতিক পথ অবলম্বন না করা, ক্লাইন্টের সাথে পারসোনাল ইনফরমেশন শেয়ার করা থেকে বিরত থাকতে হবে। ফেসবুকে বিভিন্ন ফ্রিলান্সিং গ্রুপ আছে। সেখানে বাংলায় সুন্দর ভাবে বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসের নিয়ম লিখা আছে। সেগুলো ফলো করলেই হবে।

টেক প্রো টিউনসঃ নিজেকে ৩ বছর পর কোথায় দেখতে চান

মোঃ রায়হানুর রহমানঃ  ৩ বছর পর নিজেকে আরো ভালো যায়গায় দেখতে চাই অবশ্যই তবে আমি একলা না। আরো ফ্রিলান্সারদের যেনো হেল্প করতে পারি আর বাংলাদেশকে ফ্রিল্যান্সিং জগতে শীর্ষে আনার ব্যপারে নূন্যতম ভূমিকা রাখতে পারি। নিজের দক্ষতা আরো উন্নত করতে চাই।

 

 

 

 

 

 

আমার নাম আরিফুল। গ্রাফিক ডিজাইন, ডিজিটাল মার্কেটিং, ব্র্যান্ডিং ইত্যাদি বিষয় নিয়ে কাজ করি। লিখতে অনেক ভালোবাসি। মুলত আইটি বিষয়ক বিভিন্ন লেখা লিখি থাকি।আমি এই ব্লগের এডমিন। আশা করি আপনাদের ভালো কিছু আর্টিকেল দিতে পারবো যা পড়ে আপনারা উপকৃত হবেন। এটার সাথে আমি ই ক্যাব এবং জেনেসিস ব্লগে ও লিখে থাকি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *