ফ্রিল্যান্সাররা

যে ৪টি কাজ করে সব থেকে বেশি টাকা পায় ফ্রিল্যান্সাররা

যে ৪টি কাজ করে সব থেকে বেশি টাকা পায় ফ্রিল্যান্সাররা

ফ্রিল্যান্সিং বলতে আমরা অথবা ফ্রি ল্যান্সাররা কি শুধু গ্রাফিক ডিজাইন আর ওয়েব ডিজাইন বুঝি? আর কিছু করে কি ফ্রিল্যান্সিং করা যায় না? অবশ্যই করা যায়।কোন কোন কাজে সব থেকে বেশি টাকা ইনকাম করছে ফ্রিল্যান্সাররা, সেটা জানলে এমনটা হতে পারে যে আপনি অনুপ্রেরনা পাবেন কাজ করতে। সবার আগে আছে প্রোগ্রামিং এবং সফটওয়্যার ডেভোলপমেন্ট

 

প্রোগ্রামিং এবং সফটওয়্যার ডেভোলপমেন্ট

একজন দক্ষ প্রোগ্রামার ঘণ্টায় ১০০০ ডলার পর্যন্ত ইনকাম করার ও ঘটনা আছে জানেন কি? তার নাম হচ্ছে James Knight। প্রোগ্রামিং এর কাজ যেমন সফটওয়্যার এবং মোবাইল এপ্স ডেভোলপমেন্ট কাজে সব থেকে বেশি টাকা পেমেন্ট করা হচ্ছে। একটাই কারন সেটা হচ্ছে এটা খুব সহজ না আর মার্কেট এ অনেক ভালো মানের কোডার নাই। আমরা আসলে সবাই সহজের পিছনে ছুটি। 

এখন আপনি যদি এরকম লেভেল এর কোডার হতে চান তাহলে যেটা করতে হবে সেটা হচ্ছে আপনাকে কোডিং শিখতে হবে, ইউটিউব, ইউ ডেমি থেকে ফ্রি কোর্স না, এখানে আপনাকে শুধু বেসিক আইডিয়া দিবে, কিছু টাকা খরচ করে ভালো কোন ট্রেনিং সেন্টারে প্রজেক্ট ভিত্তিক একটা কোর্স করেন

এরপর প্রথমেই আপনি ১০০০ডলার ঘন্টায় চাইতে পারবেন না, কারন আপনার অভিজ্ঞতা কম, এটা আস্তে আস্তে বাড়তে থাকবে আপনার স্কিল এর সাথে। আপনার যদি ভালো স্কিল iOS এবং WebGL সম্পর্কে আপনি প্রথমে ১৫০ ডলার পর্যন্ত চাইতে পারেন।

 

ওয়েব ডিজাইন অ্যান্ড ডেভোলপমেন্ট

ওয়েব ডিজাইন এবং ডেভোলোপমেন্টের অনেক ডিম্যান্ড আছে ফ্রিল্যান্সার দের জন্য। ফ্রিল্যান্সাররা অবশ্যই এটা কে পেশা হিসেবে গ্রহন করতে পারে। তবে এটা খুব সহজ না কারন ওয়েব ডিজাইন, ডেভোলপমেন্টের জন্য কোডিং খুব বেশি কঠিন না আর যার ফলে অনেকেই এটা শিখে ওয়েব সাইট ডিজাইন শুরু করে দেয়, তাই বুঝতেই পারছেন ফ্রিল্যান্সার যে এখানে প্রতিযোগিতা অনেক বেশি। তাই ভালো হয় এখানে একটা নির্দিষ্ট নিশ বাছাই করে কাজ করা। যেমন Jonathan Wold নামের একজন ডেভোলপার ওয়ার্ডপ্রেসের মাধ্যমে কাজ করে মাসে ৫০০০ ডলার পর্যন্ত উপার্জন করেছে।

 

কন্টেন্ট রাইটিং অথবা মার্কেটিং

এখন ইনবাউন্ড মার্কেটিং, কন্টেন্ট রাইটিং এর চাহিদা অনেক, এটাকে অন্যতম হট টপিক বলা হচ্ছে। এটা ভালো মত করতে পারলে মাসে ৫০০০ ডলার পর্যন্ত ইনকাম করা যেতে পারে। তারপর ও সবাই হয়তো লেখক হতে পারে না, তবে আপনি যদি এই কাজ করতে চান থাওলে অনেক বেশি পড়তে হবে, অনেক বেশি লিখতে হবে আর সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে আপনার একটা ক্রিয়েটিভ মাইন্ড থাকতে হবে যার মাধ্যমে আপনি অনেক সুন্দর করে কিছু লিখতে পারবেন আর ক্লাইন্ট আপনাকে ভালো পেমেন্ট করবে। 

 

গ্রাফিক ডিজাইন

ফ্রিল্যান্সাররা যে গ্রাফিক ডিজাইন কে এক নাম্বার মনে করেন তারা দেখতে ই পাচ্ছেন, ইনকাম এর দিক থেকে সেটা ৪ নাম্বারে। তবে রেট কম হলে ও এখানে কাজ অনেক বেশি এটা বলাই যায়। আর প্রতিযোগিতা অনেক বেশি কারন এটা মানছেন তো যে গ্রাফিক ডিজাইন শেখাটা প্রোগ্রামিং এর থেকে একটু সহজ, আর সহজ হবার কারনে অনেকেই আসছে। তবে আপনি ভালো মানের ডিজাইন করতে পারলে ঘন্টায় ৮৫ ডলার পর্যন্ত ইনকাম করতে পারবেন।

ইনফোগ্রাফিক ডিজাইনে এ ফ্রিল্যান্সাররা অনেক কাজ পাচ্ছেন, এ ছাড়া লোগো ডিজাইন, আইকন ডিজাইন, ইলাস্ট্রেশন এর বেশ ডিম্যান্ড আছে। 

 

কিছু গুরুত্বপূর্ণ কথা

এটা অবশ্যই ঠিক যে আপনি ঠিক মত কাজ করতে পারলে আমি যে টাকার পরিমান লিখলাম তার থেকে অনেক অনেক বেশি টাকা আপনি ইনকাম করতে পারবেন তবে “সহজেই” ইনকাম করতে পারবেন, কি ভাবে পারবেন এই চিন্তা না করলে ই মনে হয় ভালো হয়। আমরা অনেকেই চিন্তা করি খুব অল্প সময়ে, অল্প কষ্ট করে কিভাবে অনেক টাকা ইনকাম করা যায় যা সম্পূর্ণ ভাবে ভুল। আপনি কি জানেন  ফেসবুক জনপ্রিয়তা পেতে লেগেছে ৫ বছর আর সে প্রথম কিছু বছর টাকা ইনকাম এর কথা চিন্তা ও করে নাই। তাই শুধু টাকার জন্য প্রথমে ছুটাটা ভুল হবে, আপনার যেটা ভালো লাগে সেটা দিয়ে শুরু করেন তাহলে ই সফল ফ্রিল্যান্সার হতে পারবেন।

 

 

 

 

আমার নাম আরিফুল। গ্রাফিক ডিজাইন, ডিজিটাল মার্কেটিং, ব্র্যান্ডিং ইত্যাদি বিষয় নিয়ে কাজ করি। লিখতে অনেক ভালোবাসি। মুলত আইটি বিষয়ক বিভিন্ন লেখা লিখি থাকি।আমি এই ব্লগের এডমিন। আশা করি আপনাদের ভালো কিছু আর্টিকেল দিতে পারবো যা পড়ে আপনারা উপকৃত হবেন। এটার সাথে আমি ই ক্যাব এবং জেনেসিস ব্লগে ও লিখে থাকি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *